Design a site like this with WordPress.com
Get started

ভারত কিনতে চলেছে MQ 9 রিপার ড্রোন, শত্রুদের র‍্যাডারে ধরা না পড়েই ধ্বংসলীলা চালাতে পারবে যেকোন জায়গায়

ভারতের (India) কাছে আগামী কয়েক মাসের মধ্যে এমন এক অদৃশ্য কাল আসছে, যেটা দেখে আর তাঁর ক্ষমতার কথা শুনে পাকিস্তানে (Pakistan) বসে থাকা জঙ্গিদের হাড় কেঁপে উঠবে। এই অদৃশ্য কালের নাম হচ্ছে MQ 9 রিপার ড্রোন (MQ-9 Reaper Drone)। আমেরিকার (America) এই খতরনাক ড্রোনকে ভারত নিজেদের হাতে করতে চাইছে। এই মাসে যখন আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump) ভারতে আসছেন, তখন এই ড্রোন নিয়ে দুই দেশের মধ্যে আলোচনা হতে পারে। আপনাদের জানিয়ে দিই, এই ড্রোন এক পলকেই শত্রু পক্ষকে ধ্বংস করে দিতে সক্ষম।

MQ 9 ড্রোন শত্রুদের জন্য আসমানি কাল। আমেরিকার এই আনম্যান’ড কমব্যাট এরিয়াল ভেহকিল (UCAV) একটি ছোট বিমানের মতো দেখতে হলেও, এর শক্তি অনেক ধ্বংসাত্মক। এটি আমেরিকার একটি কমব্যাট ড্রোন। এই ড্রোনের মাধ্যমে শুধু শত্রুদের উপরে নজরই রাখা যাবে না, এটাকে একটি লড়াকু বিমানের মতো ব্যবহারও করা যাবে।

নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে যে, এই ড্রোন চালাতে কোন মানুষ লাগেনা। আকশে ওড়ানোর জন্য কোন পাইলটের দরকার পড়বে না। এটি সম্পূর্ণ রিমোর্ট সঞ্চালিত একটি ড্রোন। শত্রুদের আস্তানায় জওয়ানদের না পাঠিয়েই তাঁদের খোঁজ খবর নিয়ে বিনা কোন সমস্যায় তাঁদের ধ্বংস করতে সক্ষম এই ড্রোন।

MQ-9 ধ্বংসাত্মক হামলার জন্য তৈরি করা হয়েছে। কোন আওয়াজ না করেই শ্ত্রু পক্ষকে উড়িয়ে দিতে সক্ষম এই ড্রোন। এই ড্রোনকে কয়েকশ কিমি দূর থেকেও অপারেট করা যায়। অনেক কম সময়ে দ্রুত গতিতে এই ড্রোন নিশানা ভেদ করতে সক্ষম। হাওয়াই হামলার জন্য এই ড্রোনকে ব্যবহার করা হয়। এই ড্রোন শুধু তাঁর নিজের নিশানায় ধ্বংসলীলা চালায়, আশেপাশে অনেক কম ক্ষয়ক্ষতি করে। আর সবথেকে বড় ব্যাপার হল, এই ড্রোন শত্রুদের র‍্যাডারেও ধরা পড়েনা।

Advertisement
%d bloggers like this: